জীবন পরিক্রমা/রবার্ট ব্রাউনিং

অনুবাদ : মাঈনউদ্দিন মইনুল।

১) বৃদ্ধ হও সাথে আমার!
সর্বোত্তম বাকিই রয়েছে জানার,
জীবনের শেষাংশের জন্য সৃষ্ট এই প্রথমাংশ:
তাঁর হাতে আমাদের সময়
যিনি বলেছেন, “সমগ্র পরিকল্পনাটি আমার,
যৌবন কেবল তার অর্ধেক; আস্থা করো ঈশ্বরে;
দেখো সমগ্রটি, ভয় না পেয়ে!”

২) পুষ্প সঞ্চয় অবাঞ্ছনীয় নয়,
যৌবন কামনায় বললে, “কোন্ গোলাপটি হবে আমার,
কোন পদ্মটি যাবো পেরিয়ে, কিন্তু আক্ষেপ করবো হারিয়ে?”
তারকারাজির অনুসরণ নয় তো অমঙ্গল,
জীবন বললে, “বৃহস্পতি নয়, নয় মঙ্গল;
আমারটি হবে সেই কল্পিত তারকা
যাতে সব আছে, সব যায় ছাড়িয়ে!”

৩) এমন নয় যে আশা আর দুরাশায়
যৌবনের ছোট্ট সময়টি অতিক্রম করাকে,
আমি ভুল মনে করি: বোকামি আর অকিঞ্চিতকর বলি!
বরং অবিশ্বাসকে মূল্য দিই আমি
ইতর প্রাণীর যা না হলেও চলে,
তারা পরিপূর্ণ এক মাংসপিণ্ডতেই নিঃশেষ,
আত্মিক চেতনায় ভাবলেশহীন।

৪) জীবনের অহংকার নিস্ফল হয় যেখানে
মানুষের জীবন শুধুই জৈবিক সুখে মেতে থাকে
তা খুঁজে পেয়ে তৃপ্ত থাকে:
এমন সুখভোগ শেষ হলে, পরে
নিশ্চিতভাবে তা মানুষকে শেষ করে;
ফসলপুষ্ট পাখির আর কিসের দুশ্চিন্তা?
পূর্ণউদর জানোয়ার কি অনিশ্চয়তায় অস্থির হয়?